আর. সি. সি. আই পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ

(রংপুর চেম্বার অব কমার্স এ্যান্ড ইন্ডাষ্ট্রি কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত ও পরিচালিত)

স্কুল কোডঃ ৫৩১৪ | কলেজ কোডঃ ৫২৬১ | ENIN: ১২৭৪৯৭

মোঃ গোলাম মোস্তফা

প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি

শিক্ষা একটি জাতির উন্নয়নের সূচক। আর এ ক্ষেত্রে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ভূমিকা অনস্বীকার্য। রংপর এদেশের একটি পিছিয়ে পড়া অঞ্চল। এই পিছিয়ে পড়ার মূল কারণ শিক্ষার অভাব। এই উপলব্ধি থেকেই এ অঞ্চলের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীকে এগিয়ে নেয়ার প্রয়াসে ১৯৯৬ সালে আর.সি.সি.আই পাবলিক স্কুল নামে এই প্রতিষ্ঠানের সৃষ্টি।

এ প্রতিষ্ঠানটি একটি ব্যতিক্রমধর্মী প্রতিষ্ঠান। কেননা এই প্রতিষ্ঠানটি রংপুরের সর্বস্তরের ব্যবসায়ীদের আন্তরিক প্রচেষ্টার ফসল। তারা সর্বপ্রথম মুনাফার পরিবর্তে সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে এই প্রতিষ্ঠানটি গড়ে তোলেন। শুরুতে বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন হলেও সকল প্রতিকূলতা পেরিয়ে বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটি নিজস্ব জমিতে চারতলা ভবনে কলেজ পর্যায়ে উন্নীত হয়েছে। বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটির নাম রংপুর তথা দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলির মধ্যে শিক্ষা, সাহিত্য, সংস্কৃতির সকল দিক দিয়ে উল্লেখ করার মতো। এই অর্জনটি সম্ভব হয়েছে সর্বস্তরের ব্যবসায়ী, শিক্ষানুরাগী পৃষ্ঠপোষক, শিক্ষক মণ্ডলী, অভিভাবক শ্রেণি, ছাত্রছাত্রীসহ সকল স্তরের জনগণের সার্বিক সহযোগিতা ও প্রচেষ্টার ফলে।

প্রতিষ্ঠানটি এবার প্রথমবারের মত ‘অরুণিমা’ শিরোনামে একটি বার্ষিকী প্রকাশ করতে যাচ্ছে। এটা জেনে আমি অত্যন্ত আনন্দিত। এই প্রকাশনার সাথে যারা জড়িত তাদের সকলের প্রতি জানাচ্ছি আন্তরিক ধন্যবাদ ও মোবারকবাদ। আমি এই উদ্যোগের সাফল্য কামনা করছি। সকলের জন্য রইল শুভ কামনা।


মোস্তফা সোহরাব চৌধুরী টিটু

সভাপতি

আরসিসিআই পাবলিক স্কুল এ্যান্ড কলেজের বহু প্রতিক্ষিত বার্ষিকী ‘অরুণিমা’ প্রথম বারের মতো আত্মপ্রকাশ করতে যাচ্ছে জেনে আমি অত্যন্ত আনন্দিত। বার্ষিকী হচ্ছে শিক্ষার্থীদের মনন, সৃজনশীলতা, বুদ্ধিদীপ্ত চেতনা ও আত্মসচেতনতার সৃজনভূমি। আজকের সম্ভাবনাময় ক্ষুদে লেখকেরাই আগামী দিনের স্বনামধন্য কবি-সাহিত্যিক, চিত্রশিল্পী হিসেবে আমাদের সাহিত্য, সংস্কৃতি, ইতিহাস ও ঐতিহ্যকে সমৃদ্ধ করবে এবং দেশ ও জাতি গঠনে সম্ভাবনাময় ও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। মৌলিকবোধে উজ্জীবিত হয়ে আমাদের শিক্ষার্থীরা নিজেদের মেলে ধরেছে নানামুখী লেখা, আঁকা ও কর্মকাণ্ডের মধ্যদিয়ে। বার্ষিকী ‘অরুণিমা’ তে যেমন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা তুলির আঁচড় দিয়েছে, লিখেছে বিভিন্ন বিষয়বস্তু নিয়ে, তেমনি তাদেরকে সৃজনশীল কাজে উৎসাহিত করার জন্য লিখেছেন শিক্ষকমণ্ডলীও। তাদের এ সৃজনশীল চিন্তা-চেতনা প্রতিষ্ঠানকে নতুন স্তরে পৌঁছে দেবারই প্রচেষ্টা।

রংপুর চেম্বার অব কমার্স এ্যান্ড ইন্ডাষ্ট্রি কর্তৃক পরিচালিত আরসিসিআই পাবলিক স্কুল এ্যান্ড কলেজ, রংপুর ১৯৯৬ইং সাল হতে এতদঞ্চলের অবহেলিত, বঞ্চিত ও অশিক্ষিত অধিবাসীদের জ্ঞানের আলোয় আলোকিত করার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। ইতোমধ্যে এ প্রতিষ্ঠানটি সৃষ্টিশীল মেধার লালন ও উন্নয়নে সফলতা অর্জন করেছে। আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি এ প্রতিষ্ঠানটি তাদের অবিনাশী স্বপ্ন বাস্তবায়নের অভিষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছাতে সক্ষম হবে।

পরিশেষে, ঐতিহ্যবাহী এ শিক্ষায়তনের যাঁদের উদ্যোগ, মেধা, শ্রম ও নিষ্ঠার ফসল ‘অরুণিমা’ তাঁদের সবাইকে রংপুর চেম্বার অব কমার্স এ্যান্ড ইন্ডাষ্ট্রি’র পরিচালনা পর্ষদের পক্ষ থেকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানাই। আগামীর স্বপ্নে ঐতিহ্যের নির্মাণে সূচিত হোক নবীন-প্রবীণের জয়যাত্রা। আমাদের এ নবতর প্রয়াস সকলের সমাদর অর্জন করুক এবং উত্তরোত্তর এর শ্রীবৃদ্ধি ও সমৃদ্ধি ঘটুক-এ শুভ কামনা করি।


প্রফেসর মুহম্মদ আব্দুল জলিল

অধ্যক্ষ

আরসিসিআই পাবলিক স্কুল এ্যান্ড কলেজ, রংপুর হাঁটি হাঁটি পা পা করে বর্তমান অবস্থায় এসেছে। এ আসা শুধু বাহ্যিক কাঠামো শ্রীবৃদ্ধি করেনি, গুণগত কাঠামোতে ব্যাপক ইতিবাচক পরিবর্তন এনেছে। এ পরিবর্তন এ অঞ্চলের মানুষের বিশেষ করে অভিভাবকবৃন্দের মনের আকাক্সক্ষা পূরণ করেছে। এখানেই এ প্রতিষ্ঠানের সার্থকতা। এ বছরে বার্ষিক পত্রিকা আত্মঃপ্রকাশ এ সার্থকতাই বহন করে। ম্যাগাজিন সৃষ্টিধর্মী জ্ঞান প্রকাশের বাহন। আরসিসিআই পাবলিক স্কুল এ্যান্ড কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের মেধা বিকাশের বাহন-বার্ষিক ম্যাগাজিনকে আমি অভিনন্দন জানাই। সর্বক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানটি ঈর্ষণীয় সাফল্য অর্জন করুক ও সাফল্যকে সমুন্নত রাখুক এ দোয়াই করি।


প্রফেসর মাসুদ আহমেদ হায়দার

সাবেক অধ্যক্ষ

সাহিত্য জীবনকে করে সুন্দর ও সাবলীল। মানুষকে নিয়ে যায় সত্য, ন্যায়, কল্যাণ ও সৌন্দর্যের দিকে। জাগিয়ে তোলে ভিতর থেকে তার মনুষ্যত্ব, দেশপ্রেম ও বিশ্বভ্রাতৃত্ববোধ। জীবন ও জগতের পাঠ গ্রহণের উপায় হিসেবে অতীতকাল থেকেই সাহিত্যচর্চা স্বীকৃত। সাহিত্যের উপযোগিতা মানুষের চেতনাকে শাণিত করে বলেই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে এর চর্চাকে সবসময় উৎসাহিত করা হয়। প্রথমবারের মত আরসিসিআই পাবলিক স্কুল এ্যাণ্ড কলেজের বার্ষিকী ‘অরুণিমা’ প্রকাশিত হতে যাচ্ছে, যা আমাদের সকলের জন্য আনন্দ ও গর্বের বিষয়।

এ প্রকাশনার মাধ্যমে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার পাশাপাশি আমাদের শিশু কিশোরদের চেতন ও অবচেতন মনের শিল্পবোধ ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডের স্বতঃস্ফূর্ত প্রকাশ ভবিষ্যতে তাদের পরিশীলিত জীবন গড়তে উদ্বুদ্ধ করবে, প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ হিসেবে প্রিয় ছাত্র-ছাত্রীদের নিকট এটাই আমার প্রত্যাশা।

পমহান আল্লাহ আমাদের সহায় হউন। আল্লাহ হাফেজ।

ক্লাসের সময়

শনিবার - বৃহস্পতিবার

সকাল ৮ টা - দুপুর ২ টা

আমাদের ঠিকানা

পূর্ব শালবন, বেগম রোকেয়া

সারণি, রংপুর সদর রংপুর

অফিস সময়

শনিবার - বৃহস্পতিবার

সকাল ৮ টা - বিকাল ৫ টা

ফোন & ইমেইল

ফোন : ০৫২১-৬৩১৭০

মোবাইল নং-০১৭৩১-৪৯৫৩৩৩, ০১৩০৯-১২৭৪৯৭,

rccipsc@gmail.com